শবে মেরাজ কবে ২০২৪

শবে মেরাজ কবে

মুসলমানদের গুরুত্বপূর্ণ একটি ধর্মীয় উৎসব হচ্ছে শবে মেরাজ। যা প্রতি বছর একবার পালন করা হয়। আরবি রজব মাসের চাঁদ দেখার উপর নির্ভর করে শবে মেরাজ কবে পালন করতে হবে। বিশ্বের ইসলামিক সংস্থা টি চাঁদ দেখা শুরু করেছে। তারা জানিয়ে ইংরেজি সালের ফেব্রুয়ারি মাসে ২০২৪ সালে শবে মেরাজ শুরু হবে। বাংলাদেশে ৯ই ফেব্রুয়ারি শবে মেরাজের জন্য সরকারি ছুটি দেওয়া হয়েছে। কবে এই দিন টি পালন করতে হবে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

শবে মেরাজ কবে

শবে মেরাজ একটি বিশেষ রাত যা মুসলমানদের কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই রাতে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) ঐশ্বরিক নির্দেশে ঊর্ধ্বাকাশে আরোহণ করেছিলেন এবং আল্লাহর সাক্ষাৎ লাভ করেছিলেন। এই ঘটনাটি মুসলমানদের জন্য একটি অভূতপূর্ব ও অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ ঘটনা। ইসলামী ইতিহাসে শবে মেরাজের ঘটনার গুরুত্ব অপরিসীম। এই রাতে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর সাথে অনেক অলৌকিক ঘটনা ঘটেছিল।

তিনি একাকী মসজিদুল হারাম থেকে মসজিদুল আকসা পর্যন্ত বোরাক নামক বিশেষ বাহনে করে ভ্রমণ করেছিলেন। সেখানে তিনি ইব্রাহিম (আ.), মূসা (আ.), ঈসা (আ.) প্রমুখ নবী-রাসূলদের সাথে সাক্ষাৎ করেছিলেন। অতঃপর তিনি আরশে আজিম পর্যন্ত উঠে গিয়ে আল্লাহর সাথে সাক্ষাৎ লাভ করেছিলেন। সেখান থেকে প্রতি বছর ঐ দিনকে কেন্দ্র করে শবে মেরাজের পালন করা শুরু হয়। এই বছর ফেব্রুয়ারি মাসের ৮ তারিখে শবে বরাত পালন করতে হবে।

শবে মেরাজ কবে ২০২৪

মুসলমানদের জন্য একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ রাত শবে মেরাজ। এই রাতে আল্লাহ তায়ালার বিশেষ রহমত ও বরকত বর্ষিত হয়। তাই, এই রাতে আমরা সবাই আল্লাহর কাছে ঈমান, আত্মশুদ্ধি, সামাজিক ন্যায়বিচার, দেশ ও জাতির কল্যাণসহ সকল প্রকার কল্যাণের জন্য দোয়া করি। তাই আমাদের সঠিক সময়ে ও সঠিক নিয়মে শবে মেরাজ পালন করতে হবে। প্রতি বছর একটা নির্দিষ্ট তারিখে শবে মেরাজ শুরু হয়। ২০২৪ সালে রজব মাসের ২৭ তারিখে শবে মেরাজ পালিত হবে। আর ইংরেজি ক্যালেন্ডার অনুযায়ী ২০২৪ সালের ৮ই ফেব্রুয়ারি পালন করা হবে।

শবে মেরাজের আমল

এই রাতের প্রধান কাজ হচ্ছে বেশি বেশি আমল করা। বান্দা যেকোনো আমলের মাধ্যমে আল্লাহ তায়ালেকে খুশি করতে পারে। এর মধ্যে নামাজের মাধ্যমে শবে মেরাজের রাতে আমল করা অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ। শবে মেরাজের আমল গুলো নিচে দেওয়া হলো।

তাহাজ্জুদ নামাজ পড়া

তাহাজ্জুদ নামাজ হল নফল নামাজের মধ্যে সবচেয়ে উত্তম নামাজ। এই নামাজটি রাতের শেষভাগে ঘুম থেকে উঠে পড়া হয়। শবে মেরাজের রাতে তাহাজ্জুদ নামাজ পড়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই নামাজের মাধ্যমে আল্লাহ তায়ালার রহমত ও বরকত লাভ করা যায়।

কোরআন তেলাওয়াত করা

কোরআন তেলাওয়াত করা একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ইবাদত। এই আমলটি দ্বারা আল্লাহ তায়ালার সন্তুষ্টি লাভ করা যায়। শবে মেরাজের রাতে কোরআন তেলাওয়াত করা বিশেষভাবে গুরুত্বপূর্ণ। এই রাতে কোরআন তেলাওয়াত করলে আল্লাহ তায়ালার বিশেষ রহমত ও বরকত বর্ষিত হয়।

দোয়া করা

দোয়া হল মুমিনের সবচেয়ে বড় ইবাদত। এই আমলটির মাধ্যমে আল্লাহ তায়ালার কাছে সকল প্রকার কল্যাণের জন্য প্রার্থনা করা হয়। শবে মেরাজের রাতে দোয়া করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই রাতে আল্লাহ তায়ালার কাছে ঈমান, আত্মশুদ্ধি, সামাজিক ন্যায়বিচার, দেশ ও জাতির কল্যাণসহ সকল প্রকার কল্যাণের জন্য দোয়া করা উচিত।

শবে মেরাজের রাতে কিছু বিশেষ আমল:

  • শবে মেরাজের রাতে ঘুম থেকে উঠে গোসল করা এবং সুন্দর পোশাক পরিধান করা।
  • মসজিদে গিয়ে নামাজ আদায় করা।
  • নবী মুহাম্মদ (সা.)-এর প্রতি দরুদ ও সালাম পড়া।
  • আল্লাহ তায়ালার কাছে ঈমান, আত্মশুদ্ধি, সামাজিক ন্যায়বিচার, দেশ ও জাতির কল্যাণসহ সকল প্রকার কল্যাণের জন্য দোয়া করা।

শেষ কথা

ইসলামিক বিভিন্ন উৎসব গুলো চাঁদ দেখার উপর নির্ভর করে। আকাশে চাঁদ দেখা গেলে ঐ রাতেই শবে পালন করা হবে। ইসলামিক সংস্থার মতে ফেব্রুয়ারি মাসের ৮ তারিখেই শবে মেরাজ পালন করা হবে। আশা করছি শবে মেরাজ কবে  তা এই পোস্ট থেকে জানতে পেরেছেন।

One Comment on “শবে মেরাজ কবে ২০২৪”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *