মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি ২০২৪। Medical Admission 2023-24

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি ২০২৪

এইচ এস সি স্তরের পর আমাদের ভর্তি হতে হয় বিশ্ববিদ্যালয়ে। তাই অনেকের স্বপ্ন থাকে ডাক্তার হওয়ার। এই লক্ষে সবাই মেডিকেলে চান্স নিতে চায়। বর্তমানে এডমিশন এর কঠিন পর্যায় হচ্ছে মেডিকেল পরীক্ষা। এখানে অনেকে পরীক্ষা দেয়। কিন্তু শুধুমাত্র মেধাবী কয়েকশ মানুষ ভর্তির সুযোগ পায়। ২০২৩-২৪ এর জন্য মেডিকেলে ভর্তির বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। এই পোস্টে মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি ২০২৪ সম্পর্কে শেয়ার করা হয়েছে।

চাইলেই যেকেউ মেডিকেলে এডমিশন পরীক্ষা দিতে পারবেন না। এর জন্য তাকে উপযুক্ত জিপিএ পয়েন্ট থাকতে হবে। মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা দিতে কি কি লাগবে, ভর্তি যোগ্যতা ও আবেদন যোগ্যতা, ভর্তি ও আবেদন খরচ ইত্যাদি বিষয়ে বিস্তারিত জানতে সম্পূর্ণ পোস্ট টি পড়ুন।

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি ২০২৪

ইতোমধ্যে বাংলাদেশের সকল বিশ্ববিদ্যালয়ের আবেদন প্রক্রিয়ার তারিখ ও ভর্তি পরীক্ষা সম্পর্কিত সকল তথ্য প্রকাশকরা হবে। ২০২৪ সালের জানুয়ারি মাসের দিকে বিজ্ঞপ্তি টি পাওয়া যাবে। ২০২৪ সালের মার্চে বা এপ্রিলে শুরু হতে যাচ্ছে মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা ২০২৪। ভর্তি পরীক্ষার জন্য বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছে। সেই অনুযায়ী মেধা তালিকায় স্থান পাপ্ত শিক্ষার্থীদেরকে শুধু ভর্তির জন্য অনোমোধন দেওয়া হবে।

ভর্তির আবেদনের জন্য আপনার নুন্যতম জিপিএ বা গ্রেড পয়েন্ট থাকা লাগবে। মেডিকেলে এডমিশন এর জন্য আপনার ৯ পয়েন্ট থাকতে হবে। এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় জীববিজ্ঞানে (Biology) ন্যূনতম জিপিএ ৪ থাকতে হবে। ২০২৩-২০২৪ শিক্ষা বর্ষে সরকারি ও বেসরকারি মেডিকেলে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হবে ৯ জানুয়ারি ২০২৪ তারিখে। আবেদন করা যাবে ১১ জানুয়ারি থেকে ২৩ জানুয়ারি ২০২৪। ভর্তি পরীক্ষা ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪।

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি ২০২৩-২০২৪

এমবিবিএস বা মেডিকেল পরীক্ষাও এক ধরনের প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষা। কেননা এখানে ভর্তি পরীক্ষা দেওয়ার জন্যও যোগ্যতা যাচাই করা হয়। যাদের এইচ এস সি ও সমমান পরীক্ষায় ৯ পয়েন্ট এর কম থাকে তাদের কে আবেদনের সুযোগ দেওয়া হবে না। এছাড়া এই পরীক্ষায় প্রতি ভুলের জন্য নেগোটিভ মার্ক আছে। যার ফলে পরীক্ষায় ভুল করলে নাম্বার কর্তনের জন্য মেধা তালিকা পিছিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি ২০২৩-২০২৪ তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে ২০২৪ সালের ৯ই জানুয়ারিতে প্রকাশিত হবে। এপ্রিল মাসের ১২ থেকে ২০ তারিখের মধ্যে যেকোনো সময়ে মেডিকেল পরীক্ষা শুরু হতে পারে।

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি ২০২৪
মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি ২০২৪

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার নিয়োগ ২০২৩-২৪

২০২৩ সালের এইচ এস সি ও সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার নিয়োগ প্রকাশ করা হবে। এই নিয়োগে ভর্তি সম্পর্কিত সকল তথ্য থাকবে। আশা করা যাচ্ছে ৯ জানুয়ারি ২০২৪ সালে মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার সার্কুলার দিবে। সার্কুলার তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে নোটিশের মাধ্যমে প্রকাশ করবে। তখন এই ওয়েবসাইটে নোটিশ টি পিডিএফ ফাইলে শেয়ার করা হবে।

২০২৩ সালের মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ থেকে ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ আবেদনের সময়সীমা ছিলো। আবেদন ফি ছিলো ১০০০ টাকা। মার্চের ১০, ২০২৩ তারিখে ভর্তি পরীক্ষা শুরু হয়েছিলো। ভর্তি পরীক্ষায় সকল বিষয় ভিত্তিক নাম্বার প্রদান করা হবে। সেখানে MCQ ও লিখিত অংশ থাকবে। পরীক্ষার ফলাফলে আপনার এইচ এস সি ও এস এস সি জিপিএ থেকে নাম্বার সংযুক্ত করে ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল প্রদান করা হবে।

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার আবেদন যোগ্যতা ২০২৪

এই মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা দেওয়ার জন্য প্রথমে অনলাইনে dghs.gov.bd এই ওয়েবসাইট থেকে আবেদন করতে হবে। আবেদনের সময় ফি প্রদান করতে হবে।  বিভাগ থেকে এইচএসসি/সমমান বা আলিম পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের এস এস সি ও এইচএসসি পরীক্ষায় জীববিজ্ঞান বিষয়ে ৪ পয়েন্ট সহ মোট জিপিএ ৯.০০ হতে হবে। মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় সর্বনিম্ন ৪.০০ থাকতে হবে, তাহলে মেডিকেল পরীক্ষা দেওয়ার জন্য আবেদন ফ্রম তুলা যাবে। আবেদনকারীর এস এস সি ও এইচ এস সি শিক্ষা সময় ২ বছরের বেশি হলে গ্রহণ যোগ্য হবে না।

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা ২০২৪ অনলাইন আবেদনের নিয়ম

এখানে ভর্তি আবেদন করার জন্য কিছু নিয়ম অনুসরণ করতে হবে। ১০ জানুয়ারী থেকে ২৩ জানুয়ারী, ২০২৪ এর মধ্যে dgme.teletalk.com.bd-এ “টেলি টক মোবাইল” ব্যবহার করে অনলাইনে বাএস এম এস  এর মাধ্যমে করতে পারেন। এজন্য আপনাকে আবেদন ফি প্রদান করতে হবে। আবেদনের সময় ৩০০X৩০০ পিক্সেল এর রজ্ঞিন ছবি সংযুক্ত করতে হবে।  ফাইলের আকার ১০০ কেবি এর বেশি হওয়া যাবে না। স্বাক্ষরের আকার: 300 X 80 পিক্সেল এবং ৬০ কেবি এর মধ্যে হতে হবে।

  1. dgme.teletalk.com.bd ভিজিট করুন।
  2. এমবিবিএস ভর্তিতে যান।
  3. Application অপশনে যান।
  4. আপনার তথ্য লিখুন এবং “পরবর্তী” ক্লিক করুন।
  5. আপনার আবেদন সঠিকভাবে পূরণ করুন.
  6. আপনার ছবি এবং স্বাক্ষর আপলোড করুন.
  7. আপনার আবেদন পর্যালোচনা করুন এবং “জমা দিন” এ ক্লিক করুন।
  8. টেলিটক প্রিপেইড মোবাইল ব্যবহার করে আবেদন ফি প্রদান করুন।

আবেদন ফি প্রদানের নিয়ম

আবেদনের সকল তথ্য সম্পূর্ণ করার পর ভালোভাবে চক করে নিবেন। এরপর আবেদন টি সাবমিট করে অনলাইনে জমা দিন। আবেদন পত্র টি এক কপি প্রিন্ট করে নিবেন। আবেদন সম্পূর্ণ করার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে অনলাইনে আবেদন ফি পরিশোধ করতে হবে। টেলিটক সিম এর মাধ্যমে মোবাইলে একটি এস এম এস পাঠিয়ে আবেদন ফি পরিশোধ করতে হবে। কিভাবে করতে হয় তা নিচে শেখানো হয়েছে।

  • মোবাইলের মেসেজ অপশনে গিয়ে প্রথম এসএমএস পাঠান: “MBBS [স্পেস] ইউজার আইডি” টাইপ করুন এবং 16222 নম্বরে এস এম এস পাঠান। উদাহরণস্বরূপ, 16222 নম্বরে “MBBS FGLTGS” পাঠান।
  • প্রথম এসএমএসের পরে, টেলিটক একটি পিন সহ উত্তর দেবে এবং আবেদনের ফি উল্লেখ করবে। পিন  টি সংগ্রহ করতে রাখতে হবে। পরে এটা কাজে লাগবে।
  • এখন দ্বিতীয় এসএমএস পাঠান: “MBBS [স্পেস] পিন [স্পেস] সেন্টার কোড” টাইপ করুন এবং 16222 নম্বরে পাঠান। যেমন, “MBBS YES 45632115 19,47,38,26” পাঠান।
  • পছন্দের ক্রমে চারটি কেন্দ্র কোড প্রদান করুন, কমা দ্বারা পৃথক করুন৷ কেন্দ্র কদ নিচের লাইনে শেয়ার করা হয়েছে।

পরীক্ষা কেন্দ্র ঠিকানা ও কড নাম্বার

১৩ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ, ফরিদপুর।
১৫ চ্যানোগ্রাইন মেডিকেল কলেজ, চট্টগ্রাম
১৮ কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ, কুমিল্লা
১৯ ঢাকা মেডিকেল কলেজ, ঢাকা
২১ খুলনা মেডিকেল কলেজ, খুলনা
২৩ শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ, ঢাকা
২৪ M.A.G. ওসম্যান, মেডিকেল কলেজ, সিলেট
২৬ মুগদা মেডিকেল কলেজ, ঢাকা
২৭ ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ, ময়মনসিংহ
৩১ পাবনা মেডিকেল কলেজ, পাবনা
৩৩ রাজশাহী মেডিকেল কলেজ, রাজশাহী
৩৫ রংপুর মেডিকেল কলেজ, রংপুর
৪২ শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ, বরিশাল
৩৮ শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ, ঢাকা
৩৯ শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ, কিশোরগঞ্জ
৪১ শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ, বগুড়া
৪৬ শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজ, গোপালগঞ্জ
৪৭ স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ, ঢাকা
৯৯ ঢাকা ডেন্টাল কলেজ, ঢাকা

এমবিবিএস ভর্তি ২০২৪ এর জন্য যা যা লাগবে

  • এমবিবিএস বা মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা দেওয়ার জন্য কিছু নির্দেশোনা আছে। এগুলো মেনে ভর্তি পরীক্ষার জন্য আবেদন করতে হবে। নিচে মেডিকেল ভর্তি এর প্রয়োজনীয়তা গুলো দ
  • আবেদন করার জন্য, আপনাকে অবশ্যই একজন বাংলাদেশী নাগরিক হতে হবে যিনি ২০২০ বা ২০২২ সালে এস এস সি বা সমমান এবং ২০২২ বা ২০২৩ সালে এইচএসসি বা সমমানের (পদার্থবিদ্যা, রসায়ন ও জীববিজ্ঞান সহ) সম্পন্ন করেছেন।
  • আপনি যদি২০২০ সালের আগে এসএসসি শেষ করেন তবে আপনি আবেদন করতে পারবেন না।
  • সাধারণ প্রার্থীদের এসএসসি এবং এইচএসসি বা সমমানের ন্যূনতম মোট জিপিএ ৯.০ এবং বাংলাদেশ ও বিদেশী শিক্ষা প্রোগ্রামে এসএসসি এবং এইচএসসি-তে কমপক্ষে একটি জিপিএ ৩.৫০ সহ প্রয়োজন।
  • পার্বত্য চট্টগ্রাম জেলার উপজাতীয় এবং অ-উপজাতি প্রার্থীদের জন্য, এসএসসি এবং এইচএসসি বা সমমানের মোট জিপিএ ৮ পয়েন্ট প্রয়োজন। পৃথকভাবে জিপিএ ৩.৫০ এর নিচে হলে আবেদন গ্রহণ করা হবে না। এই নিয়মটি প্রাইভেট মেডিকেল/ডেন্টাল কলেজে ভর্তির জন্য বিদেশী শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য।
  • সকল প্রার্থীর এইচএসসি স্তরে জীববিজ্ঞানে জিপিএ  ৪.০ থাকতে হবে।

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার মানবন্টন

প্রতিবছর সামান্য পরিমাণে মানবন্টন পরিবর্তন হয়ে থাকে। এছাড়া রেজাল্ট দেওয়ার নিয়ম টি একই ভাবে কিছু পরিবর্তন হয় সেই বছরের সর্বচ্চ নাম্বারের উপর। তো সাধারণভাবে মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার মানবন্টন টি যেভাবে করা হয় তা এখানে শেয়ার করেছি। এই ভাবেই ২০২৩-২৪ মেডিকেল এডমিশন পরীক্ষার নম্বর বিভাজন করা হবে।

বিষয়ের নাম নম্বর
জীববিজ্ঞান ৩০
রসায়ন ২৫
পদার্থ ২০
ইংরেজি ১৫
বাংলাদেশের ইতিহাস ও মুক্তিযুদ্ধ ১০
মোট নম্বর ১০০

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা নম্বর কর্তন পদ্ধতি

পরীক্ষার সময় আমাদের নানা ভুলে নবর কাটা যায়। তারা নিখুঁত ভাবে পরীক্ষার খাতা চেক করে। সামান্য ভুলেই আপনার ভর্তি পরীক্ষার নম্বর কম পেতে পারেন। আপনার প্রতি ভুল উত্তরের জন্য পাপ্ত নাম্বার থেকে ০.২৫ অর্থাৎ আপনি ৪ টি উত্তর ভুল করলে সেখান থেকে ১ নাম্বার কাটা যাবে। তাই কখনো ভুল উত্তর লেখা যাবে না। যেটি পারবেন, সেটির উত্তর লিখতে হবে।

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার পাশ নম্বর কত

মোট ১০০ নাম্বারে পরীক্ষা নেওয়া হবে। এর মধ্যে লিখিত ও mcq থাকবে। এর মধ্যে সর্বনিম ৪০ পেতে হবে। এর নিচে পেলে আপনি পাশ বলে গণ্য হবেন না। তাই আপানকে ৪০০ এর নিচে পাওয়া যাবে না। চান্স পাওয়া আর জন্য অবশ্যই আপনাদেরকে ৬০+ তুলতে হবে। যত বেশি নাম্বার তুলতে পারবেন, চান্স পাওয়ার জন্য তত সুবিধা হবে।

এছাড়া এসএসসি ও এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ মােট ২০০ নম্বর হিসেবে নির্ধার করে পারপ্ত নাম্বার বিবেচনা করা হয়। এসএসসি/সমমান পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ-এর ১৫ গুণ যা ৭৫ নম্বর এবং এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ-এর ২৫ গুণ যা ১২৫ নম্বর। মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার পাশ মার্ক ৪০।

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার আবেদন সময় সীমা

মার্চ বা এপ্রিলের ২০২৪ থেকে মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার আবেদন শুরু হবে। আবেদনের জন্য সময়সীমা হচ্ছে ১১ জানুয়ারি ২০২৪ থেকে থেকে ২৩ জানুয়ারি ২০২৪ তারিখ পর্যন্ত। চান্স নেওয়া শিক্ষার্থীদেরকে এই তারিখের মধ্যে মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার জন্য আবেদন করতে হবে। এর মধ্যে আবেদন না করলে পারলে আপনারা পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন না। আবেদনের জন্য এইচ এস সি বোর্ড রোল ও রেজিস্ট্রেশন নামনার ও আরও কিছু প্রয়োজনীয় জিনিস লাগবে। আবেদনের ফরম মূল্য ১৫০০ টাকা।

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা শুরু কবে থেকে

মেডিকেল ভর্তি বিজ্ঞপ্তি থেকে ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষের মেডিকেল পরীক্ষার তারিখ জানাগেছে। এখানে এইচ এস সি ২০২৩ ব্যাচের পাশা-পাশি পূর্বের ব্যাচের শিক্ষার্থীরাও আবেদনের মাধ্যমে পরীক্ষা দিতে পারবে। পরীক্ষা শুরু হবে ৯ই ফেব্রুয়ারি। ভর্তি পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি ১০ই জানুয়ারি প্রকাশ করা হয়েছে।

  • আবেদন শুরু: ১১ জানুয়ারি, ২০২৪ 
  • আবেদন শেষ: ২৩ জানুয়ারি, ২০২৪ 
  • আবেদন ফি:  ১০০০ টাকা 
  • ভর্তি পরীক্ষা :  ৯ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৪  
  • প্রবেশপত্র ডাউনেলোড :  ৫-৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ 
  • অফিশিয়াল ওয়েবসাইট: dghs.gov.bd
  • আবেদন লিংক : dgme.teletalk.com.bd

শেষ কথা

এই পোস্টে মেডিকেল ভর্তি সম্পর্কিত সকল তথ্য শেয়ার করা হয়েছে। মোট ১৯ টি কেন্দ্রে ভর্তি পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হয়েছে।  আশা করছি এই পোস্ট থেকে মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি ২০২৪ সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। এই রকম আরও পোস্ট পেতে আমার সাথেই থাকুন।

আরও দেখুনঃ

২২ টি গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা সার্কুলার ২০২৪। GST Admission 2023-24